শোয়েব মালিক সকলের মন জয় করে নিলেন…

পাকিস্তানের বিপক্ষে ফাইনালে উঠার ম্যাচে বিপর্যয়ে পড়া দল তার ব্যাটেই আশা দেখছিল। মুশফিকুর রহিম খেলছিলেনও দারুণ। তবে ৯৯ রানে আউট হয়ে দুর্ভাগ্যজনক এক রেকর্ড সঙ্গী হয়েছে তার। যে কোনো ফরম্যাটে ৯৯ রানে আউট হওয়া প্রথম বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান যে তিনিই। এশিয়া কাপেও মুশফিকের আগে কোন ব্যাটসম্যান ৯৯ রানে আউট হননি।

নেমেছিলেন দলের বিপর্যয়ে। নামার পর বিপর্যয় ঘনিয়েছে আরও। ১২ রানে ৩ উইকেট খুইয়ে খাদের কিনারে থাকা দলকে দারুণ ব্যাটিংয়ে টেনে তুলেছেন মুশফিক। মনে হচ্ছিল অনায়াসে পেতে যাচ্ছেন টুর্নামেন্টে আরেকটি সেঞ্চুরি। যদিও ডিহাইড্রেশনে শরীর বাধা হয়ে দাড়াচ্ছিল। প্রতিকূলতা নিয়েও এগিয়ে যাচ্ছিলেন তিন অঙ্কের দিকেই। শাহিন আফ্রিদিকে থার্ড ম্যান দিয়ে বাউন্ডারি মেরে পৌঁছে গিয়েছিলেন ৯৯ রানে।

সেখানেই ভুল। পরের বলেই তাকে ড্রাইভ করতে গিয়ে ক্যাচ দিয়েছেন উইকেটের পেছনে। সব সংস্করণ মিলিয়ে এর আগে ৯০ এর ঘরে মোট চারবার থেমেছিল মুশফিকের ইনিংস।

তবে যন্ত্রনার এই রেকর্ডের মাঝে সকলের দৃষ্টি কেড়েছে এই একটি ছবি। যেখানে দেখা গেছে মুশফিক ৯৯ রান করে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরার পথে পাকিস্তান দল থেকে একমাত্র খেলোয়ার হিসেবে তাকে সমবেদনা দিতে এগিয়ে আসেন শোয়েব মালিক।

৯৯ রান করে ব্যাট করতে থাকা মুশফিককে ফিরিয়ে যখন বুনো উল্লাসে মেতে উঠে ১৮ বছরের তরুণ শাহিন আফ্রিদি ও তার দল। সেখানে দলের সাথে উল্লাসে যোগ না দিয়ে মুশফিককে সমবেদনা জানাতে দৌড়ে আসেন শোয়েব মালিম। শুধু বাংলাদেশের ম্যাচেই এই চিত্র নয়। আফগানিস্তানের বিপক্ষেও দলকে জিতিয়ে রশিদ-্অাফতাবদের কান্না থামাতে বুকে টেনে নিয়েছিলেন এই শোয়েব মালিক।

বলা হয় ক্রিকেট ভদ্র লোকের খেলা। আর ভদ্র লোকের খেলা এই ক্রিকেটর জ্বলজ্যন্ত উদাহরন হচ্ছেন শোয়েব মালিক।

Rate this post