একাদশ নির্বাচনে সকল দল ‘সমান সুযোগ’ পায়নি: টিআইবি

টিআইবি

সব রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণের ফলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ‘অংশগ্রহণমূলক’ বলা গেলেও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতে পারেনি বলে জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্ট্যারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

টিআইবির সার্বিক পর্যালোচনায় দেখা যায়, নির্বাচন কমিশন অনেক ক্ষেত্রে যথাযথ ভূমিকা পালন করতে পারেনি। বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের দমনে সরকারের ভূমিকার প্রেক্ষিতে অবস্থান নেয়ার ক্ষেত্রে কমিশন নিরবতা পালন করেছে বা ক্ষেত্র বিশেষে অস্বীকার করেছে। ফলে সকল দল সমান সুযোগ পায়নি।

আরো নিউজ
হাত পায়ের নখ সুন্দর উপায়!

মঙ্গলবার (১৫ জানুয়ারি) রাজধানীর মাইডাস সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রক্রিয়া পর্যালোচনার প্রাথমিক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে আসে।

টিআইবি প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘সংসদ না ভেঙে নির্বাচন করার ফলে সরকারে থাকার প্রশাসনিক ও অর্থনৈতিক সুবিধা আদায় করা ক্ষমতাসীন দল ও জোটের জন্য সহজ হয়েছে। অপরদিকে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের মাধ্যমে নির্বাচনী কার্জক্রমে অংশগ্রহণ করতে বাধা দেয়া হয়েছে, যা ক্ষমতাসীন দলের পক্ষে গেছে।

টিআইবি জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের নির্বাচনী আচরণবিধি লংঘনের প্রবণতা লক্ষণীয়। ভোটের দিনে সারা দেশে বেশিরভাগ কেন্দ্রে আওয়ামী লীগসহ মহাজোটের নেতাকর্মীদের দখলে থাকার অভিযোগসহ বেশিরভাগ কেন্দ্রে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের পোলিং এজেন্ট ছিল না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন টিআইবি চেয়ারপারসন সুলতানা কামাল, টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান প্রমুখ।

5 (100%) 6 votes