আলোর নিউজ https://www.alornews.com/2021/03/blog-post_91.html

সেরা ১০ টি কী-বোর্ড শর্টকাটস যা সকলের জেনে রাখা উচিত

 আপনি যদি কাজের ধীরগতি কমাতে চান এবং গতিশীলতা বাড়িয়ে কাজে আরো মনোযোগী হতে চান তাহলে আপনার অবশ্যই কী-বোর্ড ব্যবহারের শর্টকাটস নীতিগুলি জেনে রাখা উচিত।  এর একটি উদাহরণ দিলে বিষয়টি ভালভাবে বুঝতে পারবেন, যেমন "Ctrl+C" শর্টকাট দিয়ে আপনি যেকোন বিষয়বস্তুতে লেখা বা মেসেজ কপি এবং হাইলাইট করতে পারবেন। আপনি যদি কী-বোর্ড শর্টকাট ছাড়া লেখা কপি করতে চান তাহলে আপনাকে মাউসের রাইট বাটন ক্লিক করে, কপি অপশনটি সিলেক্ট করে আবার আপনাকে কী-বোর্ডের কাজে ফিরে আসতে হবে,যা সময়সাপেক্ষ বিষয়। তবে চিন্তিত হওয়ার কোন কারন নেই,আমরা আপনার এই অসুবিধা দূর করার জন্য সেরা ১০ টি কী-বোর্ড শর্টকাটস নিয়ে আজকে আপনাদের বিস্তারিত জানাব। এবং আমি আপনাকে পরামর্শ দেব আপনার দৈনন্দিন কাজকে সহজ করতে এগুলি মনে রাখুন এবং ব্যবহার করুন।




১.Ctrl+C এবং Ctrl+X

প্রথমেই জেনে নেয়া যাক "Ctrl+C or Ctrl+Insert" এই দুইটি শর্টকার্ট সম্পর্কে।Ctrl+C অথবা Ctrl+Insert এই দুইটি শর্টকাটই হাইলাইটকৃত মেসেজ,লেখা  অথবা যেকোন নির্বাচিত আইটেম কপি করে। আপনি যদি লেখার মধ্যে কোন আইটেম বা অংশ কপি করার বদলে বাদ দিতে চান তাহলে "Ctrl+X" প্রেস করুন,তাহলে সিলেক্ট করা লেখা বা আইটেমটি মুছে যাবে এবং ক্লিপবোর্ডে সংরক্ষিত হয়ে থাকবে। Apple কম্পিউটার ব্যবহারকারীরা Ctrl+C এর বদলে "Cmd+C" ব্যবহার করে নির্বাচিত লেখা বা মেসেজ কপি করার কাজটি করতে পারবেন।


২."Ctrl+V অথবা Shift+Insert"

এরপর আমরা জানব অন্য একটি কী-বোর্ড শর্টকাটস সম্পর্কে। "Ctrl+V or Shift+Insert" উভয় শর্টকাটস দিয়েই ক্লিপবোর্ডে সংরক্ষিত কপি করা লেখা পেস্ট করা যায়। আপনি যেকোন বিষয়বস্তুর লেখা কপি করে "Ctrl+V অথবা Shift+Insert" শর্টকাটসএর মাধ্যমে যেকোন জায়গায় পেস্ট করতে পারবেন। বিষয়বস্তু বা লেখা কপি করার পর ক্লিপবোর্ডে সংরক্ষিত থাকে,Ctrl+V অথবা Shift+Insert" শর্টকাটস প্রেস করলে লেখাগুলি পেস্ট হয়ে যাবে। Apple কম্পিউটার ব্যবহারকারীরা " Cmd+V" শর্টকাটস ব্যবহার করে লেখা বা মেসেজ পেস্টের কাজ করতে পারবেন।

৩.Ctrl+Z এবং Ctrl+Y

আপনি যদি কোন বিষয়বস্তু বা কোন কাজ আনডু মানে কাজের আগের অবস্থায় ফিরে যেতে চান তাহলে" Ctrl+Z" শর্টকাটস ব্যবহার করুন। একটি উদাহরনের মাধ্যমে বিষয়টি সহজে বলছি,আপনি যদি কোন বিষয়বস্তুর বা লেখার অংশ বাদ দিয়ে থাকেন কিন্তু আপনার পরে মনে হয় যে সেটা আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনবেন তাহলে "Ctrl+Z" শর্টকাট প্রেস করুন। এই শর্টকাটস ব্যবহারের মাধ্যমে লেখায় যতবার খুশি বাদ দেয়া অংশ ফিরিয়ে আনতে পারবেন। আপনি যদি "Ctrl+Z" শর্টকাট ব্যবহার করে লেখা আনডু করে থাকেন এবং আপনার মনে হয় লেখার নির্বাচিত অংশ আবার বাদ দিতে চান তাহলে "Ctrl+Y"শর্টকাটস ব্যবহার করুন। এটি আপনার লেখা আনডু করার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যাবে। এই শর্টকাটস ব্যবহার করে লেখা যতবার খুশি রি'ডু করতে পারবেন। Apple কম্পিউটারে "Cmd+Z"শর্টকাটস ব্যবহার করে নির্বাচিত লেখা বা মেসেজ আনডু করা হয়,এবং আনডু করার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে অর্থাৎ রি'ডু করতে চাইলে "Cmd+Y" শর্টকাটস ব্যবহার করবেন।

৪.Ctrl+F এবং Ctrl+G

আপনি যদি অনেক বিষয়বস্তু আইটেমের ভিতর আপনার কাংখিত আইটেম খুজে বের করতে তাহলে"Ctrl+F"শর্টকাটস ব্যবহার করুন,এটি প্রেস করার পর একটি অনুসন্ধান ক্ষেত্র বা সার্চ বার ওপেন হবে। যেখানে ফাইল বা আইটেমের নাম লিখে সার্চ দিলে অনেক ফাইলের মধ্যে আপনার কাংখিত ফাইলটি খুব সহজে খুজে পাবেন। Apple কম্পিউটারে এই শর্টকাটস এর কাজটি"Cmd+F" ব্যবহারে করতে পারবেন।"Ctrl+G" ব্যবহার করে আপনি পূর্বে সার্চ করেছেন এমন ফাইল আবার এবং বারবার সার্চ বা অনুসন্ধান করতে পারবেন।

৫.Alt+Tab অথবা Ctrl+Tab

Alt+Tab শর্টকাটস এর মাধ্যমে উইন্ডোজ এ ব্যাকগ্রাউন্ডে যদি অনেকগুলি প্রোগ্রাম একসাথে ব্যবহার করেন তাহলে সেগুলি চক্র আকারে প্রদর্শন বা ডিসপ্লে হবে। এর জন্য প্রথমে Alt বাটনটি প্রেস করে ধরে রাখুন তারপর Tab বাটনে ক্লিক করুন।এগুলি আসলেই বেশ সহজ,এবং কার্যকরী তাই নয় কি পাঠক?Apple কম্পিউটারে ব্যাকগ্রাউন্ডের প্রোগ্রামগুলি দেখতে "Cmd+Tab" শর্টকাটস ব্যবহার করুন।

৬.Ctrl+Backspace,Ctrl+Left,Right arrow

"Ctrl+Backspace" শর্টকাটস দিয়ে আপনি কোন লেখা বা বিষয়বস্তু সম্পূর্নভাবে মুছে ফেলতে বা ডিলিট করে দিতে পারবেন,একটি অক্ষরও এক্ষেত্রে ডিলিট হতে বাদ যাবেনা। তবে Apple কম্পিউটার ব্যবহারকারীরা এই শর্টকাটসটি ব্যবহার করতে পারবেন না।

আপনি যদি লেখার নির্বাচিত কোন অংশ হাইলাইট করতে চান তাহলে "Ctrl+Left/right arrow" শর্টকাটস ব্যবহার করুন। আপনাকে এর জন্য প্রথমে Ctrl বাটন প্রেস করে ধরে রাখতে হবে এরপর মাউসের কার্সর দিয়ে লেখার ডান অথবা বামদিকে লেখা সিলেক্ট করতে হবে,অর্থাৎ আপনি যে অংশগুলি হাইলাইট করতে চান সেখানে left অথবা right arrow প্রেস করতে হবে।

৭. Ctrl+S

যখন আপনি কোন ফাইল বা ডকুমেন্টে কাজ করছেন এবং সেটা প্রায় শেষ হয়েছে কিন্তু সম্পূর্ন শেষ হয়নি তখন "Ctrl+S"শর্টকাটস ব্যবহার করে ফাইলটি সেভ করতে পারবেন। কোন ফাইল বা ডকুমেন্ট লেখার কাজ শেষেও আপনার ইচ্ছামত ফোল্ডারে সেভ করতে "Ctrl+S"শর্টকাটস ব্যবহার করুন। Apple কম্পিউটারে ফাইল সেভ করতে " Cmd+S শর্টকার্টস ব্যবহার করবেন।

৮.Ctrl+Home or Ctrl+End

ফাইল বা ডকুমেন্টের শুরুতে কার্সর নিতে "Ctrl+Home" শর্টকাটস ব্যবহার করতে পারেন, এবং ফাইল বা ডকুমেন্ট এর শেষে কার্সর নিতে "Ctrl+End" শর্টকাটস ব্যবহার করুন। Apple কম্পিউটার ব্যবহারকারীরা ডকুমেন্ট এর শুরুতে কার্সর নিতে "Cmd+Up arrow"শর্টকাটস ব্যবহার করুন এবং ডকুমেন্ট এর শেষে কার্সর নিতে " Cmd+down arrow"শর্টকাটস ব্যবহার করুন।

৯.Ctrl+P

"Ctrl+P" শর্টকাটস ব্যবহার করে আপনি পেজ অথবা ডকুমেন্ট এর প্রিন্ট প্রি-ভিউ বা প্রিন্ট দিলে কেমন দেখাবে সেটা দেখতে পাবেন। Apple কম্পিউটারে প্রিন্ট প্রি-ভিউ দেখতে "Cmd+P" শর্টকাটস ব্যবহার করুন।

১০.Shift+spacebar,পেজ আপ এবং পেজ ডাউন

পেজ আপ কী প্রেস করলে এটা আপনাকে পরবর্তী পৃষ্ঠায় নিয়ে যাবে। এবং পেজ ডাউন কী প্রেস করলে এটা আপনাকে আগের পৃষ্ঠায় নিয়ে যাবে।Shift+Spacebar শর্টকাটস ব্যবহার করে ও আপনি পেজের উপরে কার্সর নিতে পারবেন।

উপসংহার

তো এই ছিল সেরা ১০টি কী-বোর্ড শর্টকাটস নিয়ে আমাদের আজকের আলোচনা। আশা করি আপনাদের ভাল লেগেছে এবং দৈনন্দিন কাজের ক্ষেত্রে এই শর্টকাটসগুলির ব্যবহার আপনার কাজকে গতিশীল ও সহজ করবে।আজকের মত এখানেই শেষ করছি। এই বিষয়ে আপনার যেকোন মূল্যবান মতামত বা প্রশ্ন থাকলে আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন। এবং লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করবেন।

 ধন্যবাদ সবাইকে
 







অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া